১০টি দেশের নাম করণ যদি এই ভাবে হতো। মজার কিছু কথা আজ - Jahan Bangla News

দেশগুলোর নামকরণের ইতিহাস যদি এই ভাবে লেখা হতো।
আর্জেন্টিনা

আর্জেন্টিনা এই দেশের মানুষ খুব অলস ছিলো। তারা কোন কাজ আর্জেন মনে করতো না। কোন কাজ করতে চায়তো না। তার সব কাজ হেলাফেলা করে ফেলে রাখত। দেশটির বাণিজ্য ও অন্যান ক্ষেতে লোকজন বিরক্ত হয়ে এর নাম দিল "আর্জেন্টই না"। কালের পরিবর্তনে সংক্ষিপ্ত নাম রাখে " আর্জেন্টিনা"।

চীন

দেশটির একটি প্রজন্ম ছিল তারা ভীষণ মনভুলা। তার একে অপরকে খুব সহজে ভুলে যেতো। আজ দেখা হলো কাল আর চিন তে পারে৷ তখন মানুষ ধরে ধরে বলত চিন চিন। তখন থেকে নাম দেওয়া হলো চীন।


চিলি

এই দেশের মানুষ খুব মরিচ খেতে। তার মরিচের ভক্ত ছিলাম। আলুতে মরিচ খেতে, চিনিতে মরিচ খেতে, চকলেটে মরিচ খেতে,  পানিতে মরিচ খেতে, এমন কি পিপাসা লাগলে মরিচের জুুুস খেতে। তাই প্রতিবেশী দেশের জনগণ নাম  দেন "চিলি"।
জাম্বিয়া
এই দেশর মানুষ জাম গায়ে দিয়ে বিয়ে করতে যেতো। আমরা যেমন গায়েহলুদ দিই, ওরা দিত জাম। বিয়েতে জামের অমন ব্যবহারের কারণেই দেশটির নাম হয়েছে জাম্বিয়া।

ডেনমার্ক
পড়াশোনায় ভীষণ কাঁচা ছিল এ দেশের শিক্ষার্থীরা। পরীক্ষার রেজাল্ট দিলে তারা দৌড়ে যেত স্যারের কাছে। গিয়েই স্যারের পা জড়িয়ে ধরে বলত, ‘আরও কিছু মার্ক দেন, স্যার! দেন না কিছু মার্ক!’ সেই থেকে দেশটির নাম হলো ডেনমার্ক।

পানামা
ক্লাস চলার সময় সারাক্ষণ বেঞ্চের ওপর পা তুলে বসে থাকত এ দেশের শিক্ষার্থীরা। শিক্ষকেরা ক্লাসরুমে ঢুকেই চিৎকার উঠতেন, ‘ওই, বেয়াদ্দব প্রজন্ম, পা নামা! এক্ষুনি পা নামা।’ সেই থেকে দেশটির নামই হয়ে গেল পানামা।

অন্যান খবর পড়ুনঃ

ভুটান
এ দেশের মানুষের মাটির ওপর অনেক টান। তাই কেউ ওপরের দিকে লাফ দিলেও ধুম করে নিচে পড়ে যেত। মাটির টান অগ্রাহ্য করার সাধ্য ছিল না কারোরই। সে জন্যই দেশটির নাম ভুটান।
মিয়ানমার
এ দেশের লোকজন চান্স পেলেই মিয়া ভাইদের ধরে মার লাগাত! তাই দেশটির নাম মিয়ানমার।
নেপাল
তার পরও দেশটির মানুষগুলো অনেক নৌকা বানাত। সেই নৌকার আবার পালও বানাত তারা। বানানোর পর একদিন তারা বুঝতে পেরেছিল যে পরিশ্রম বৃথা। পালতোলা নৌকা চালানোর সমুদ্র কোথায়! তাই তারা আশপাশের সমুদ্রওয়ালা দেশগুলোকে আমন্ত্রণ জানিয়ে বলল, ‘নে, পাল, এসব আমাদের লাগবে না।’ এ তথ্য সবাই জানার পর দেশটির নামই রেখে দিল নেপাল।
 

শেয়ার করুন