এসএসসি ২০২২ ১১তম সপ্তাহ জীববিজ্ঞান অ্যাসাইনমেন্ট সমাধান | SSC 2022 11th Week Biology Assignment Solution

এসএসসি ২০২২ ১১তম সপ্তাহ জীববিজ্ঞান অ্যাসাইনমেন্ট সমাধান | SSC 2022 11th Week Biology Assignment Solution

এসএসসি ২০২২ ১১তম সপ্তাহ জীববিজ্ঞান অ্যাসাইনমেন্ট সমাধান | SSC 2022 11th Week Biology Assignment Solution

২০২২ সালের এসএসসি পরীক্ষার্থীদের জন্য এসএসসি ২০২২ একাদশ সপ্তাহ জীববিজ্ঞান এসাইনমেন্ট প্রশ্ন প্রকাশিত হয়েছে। ২০২২ সালের এসএসসি পরীক্ষার্থীরা ১১তম সপ্তাহের জীববিজ্ঞান এসাইনমেন্ট সমাধান করে তাদের শিক্ষা কার্যক্রম চালিয়ে যেতে পারবে। 


বিষয় : ২০২২ সালের এস.এস.সি পরীক্ষার্থীদের জন্য অ্যাসাইনমেন্ট ( একাদশ সপ্তাহ ) বিতরণ ।

সূত্র : এনসিটিবি’র স্মারক নং- শি : শা : ২২২/৯৪/১১২২ ; তারিখ : ২৭ জুন ২০২১ খ্রি . 

সকলের অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে , কোভিড -১৯ অতিমারির কারণে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনায় জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড ( এনসিটিবি ) কর্তৃক প্রণয়নকৃত ২০২২ সালের এস.এস.সি পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীদের জন্য পুনর্বিন্যাসকৃত পাঠ্যসূচির আলোকে নির্ধারিত গ্রিড অনুযায়ী একাদশ সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট বিতরণ করা হলো । বিতরণকৃত একাদশ সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট শিক্ষার্থীদের প্রদান ও গ্রহণের ক্ষেত্রে স্বাস্থ্যবিধি সংক্রান্ত বিধি - নিষেধ যথাযথভাবে অনুসরণপূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হলো । সংযুক্ত : অ্যাসাইনমেন্ট ( একাদশ সপ্তাহ ) 

এসএসসি ২০২২ ১১তম সপ্তাহ জীববিজ্ঞান অ্যাসাইনমেন্ট সমাধান | SSC 2022 11th Week Biology Assignment Solution


চলমান Covid-19 মহামারীর কারণে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা মোতাবেক পুনর্বিন্যাস কৃত পাঠ্যসূচির ভিত্তিতে শিক্ষার্থীদের শিখন কার্যক্রমে পুরোপুরি সম্পৃক্তকরণ ও ধারাবাহিক মূল্যায়ন এর আওতায় আনার জন্য ১১তম সপ্তাহের  জীববিজ্ঞান অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ করা হয়েছে। ২৬ শে জানুয়ারি ২০২২ থেকে ১১তম সপ্তাহের জীববিজ্ঞান অ্যাসাইনমেন্ট কার্যক্রম শুরু হবে। ২০২২ সালের এসএসসি পরীক্ষার্থীদের জন্য ১১তম সপ্তাহের  জীববিজ্ঞান অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ করা হয়েছে এবং শিক্ষার্থীরা তাও বাসায় বসে উত্তর প্রদান করে তা নিজ দায়িত্বে যত দ্রুত সময়ের মধ্যে শিক্ষকের নিকট হস্তান্তর করবেন।

এসএসসি ২০২২ ১১তম সপ্তাহ জীববিজ্ঞান অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর | SSC 2022 11th Week Biology Assignment answer


শিক্ষা মন্ত্রণালয় কর্তৃক প্রকাশিত বিভিন্ন বিজ্ঞপ্তিতে সারা দেশের সকল শিক্ষাব্যবস্থা বিভিন্ন পদ্ধতিতে পরিচালিত হচ্ছে। বিভিন্ন সময় বিভিন্ন প্রক্রিয়া অনুসরণ করে শিক্ষা মন্ত্রণালয় সারা দেশের সকল শিক্ষা কার্যক্রম চালু রেখেছে। এরই ধারাবাহিকতায় ২৫ জানুয়ারি ২০২২ তারিখে এসএসসি ২০২২  জীববিজ্ঞান  এসাইনমেন্ট প্রকাশিত হয়েছে। এসএসসি ২০২২ জীববিজ্ঞান অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর সম্পর্কিত নির্দেশনা আমরা আমাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করেছি। শিক্ষার্থীরা জীববিজ্ঞান বিষয়ে পারদর্শী হয়ে ওঠার জন্য এই মহামারীর সময় শিক্ষা মন্ত্রণালয় এসাইনমেন্ট এর ব্যবস্থা করেছেন। আমাদের ওয়েবসাইটে অ্যাসাইনমেন্ট এর নমুনা উত্তর প্রকাশিত হয়েছে। এই উত্তর দেখে শিক্ষার্থীরা এসাইনমেন্ট এর সমাধান কিভাবে করতে হবে সে সম্পর্কে ধারনা পাবেন। এসএসসি ২০২২ জীববিজ্ঞান এসাইনমেন্ট উত্তর আমাদের ওয়েবসাইট থেকে নমুনা হিসেবে ডাউনলোড করে নিতে পারেন।

এসএসসি জীববিজ্ঞান ১১তম সপ্তাহ অ্যাসাইনমেন্ট সমাধান ২০২২ | SSC Biology 11th Week  Assignment Solution 2022

এসএসসি পরীক্ষা ২০২২ এ অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীদের জন্য জীববিজ্ঞান প্রকাশিত হয়েছে। ১১তম সপ্তাহের জীববিজ্ঞান অ্যাসাইনমেন্ট এবার জীববিজ্ঞান বইয়ে সম্পর্কে প্রকাশিত হয়েছে। এসএসসি ২০২২ জীববিজ্ঞান মূলত যে সকল পরীক্ষার্থী বিদ্যালয়ে সকল বিভাগ নিয়ে পড়াশোনা করেছেন তাদের জন্য। সকল বিভাগের একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে জীববিজ্ঞান । জীববিজ্ঞান সম্পর্কে এবার এসাইনমেন্ট প্রকাশিত হয়েছে। এসএসসি ২০২২ জীববিজ্ঞান অ্যাসাইনমেন্ট সমাধান আমাদের ওয়েবসাইটে নমুনা উত্তর হিসেবে পাওয়া যাচ্ছে।

১১তম সপ্তাহের এসএসসি ২০২২ জীববিজ্ঞান এসাইনমেন্ট এর শিখনফল | 11th Week SSC 2022 Biology Assignment answer 

বিষয় : জীববিজ্ঞান 

বিষয় কোড : ১৩৮

অ্যাসাইনমেন্টঃ

শিখনফলঃ

১. মিয়োসিস পর্যায়সমূহ এর চিত্র অঙ্কন করে চিহ্নিত করতে পারবে।

২. জীবদেহে মিয়োসিস এর গুরুত্ব বিশ্লেষণ করতে পারবে।

এসএসসি ২০২২ জীববিজ্ঞান ১১তম সপ্তাহ অ্যাসাইনমেন্ট প্রশ্ন | SSC 2022 11th Week Biology Assignment Solution

এসএসসি ২০২২ জীববিজ্ঞান ১১ম সপ্তাহ অ্যাসাইনমেন্ট প্রশ্ন

এসএসসি ২০২২ জীববিজ্ঞান ১১ম সপ্তাহ অ্যাসাইনমেন্ট প্রশ্ন ২

এসএসসি ২০২২ জীববিজ্ঞান অ্যাসাইনমেন্ট সমাধান এর নির্দেশনা | SSC 2022 11th Week Biology Assignment answer


নির্দেশনা ( সংকেত / ধাপ / পরিধি ) 

১. মিয়োসিস প্রোফেজ 1 এর বাইভ্যালেন্ট সৃষ্টির উপপর্যায় টির চিহ্নিত চিত্র অংকন।

২. চিত্রসহ ক্রসিং ওভারের কৌশল ও গুরুত্ব

৩. মিয়োসিস প্রোফেজ 1 এর শেষের দুইটি উপপর্যায় এর মধ্যে ভিন্নতা ছকের মাধ্যমে উপস্থাপন।


এসএসসি ২০২২ জীববিজ্ঞান ১১তম সপ্তাহ অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর | SSC 2022 11th Week Biology Assignment answer


SSC (এসএসসি) জীববিজ্ঞান ১১তম সপ্তাহের এসাইনমেন্ট সমাধান ২০২২

বিষয়ঃ জীববিজ্ঞান

 শিমুলের পরাগায়ন

পরাগায়ন হল উদ্ভিদে প্রজননের পদ্ধতি। পুরুষ এবং স্ত্রী ফুলের মধ্যে পরাগ স্থানান্তর করার জন্য এই পদ্ধতিতে পরাগায়নের অন্তত একটি এজেন্ট প্রয়োজন। পরাগায়ন, বিশেষ করে আড়াআড়ি পরাগায়ন চারটি ভিন্ন এজেন্ট যেমন পোকামাকড়, বায়ু, প্রাণী এবং জল দ্বারা সঞ্চালিত হয়। এটি একটি উদ্ভিদের 

গমের পরাগায়ন

গম যেহেতু একটি ঘাস, তাই এটি মূলত বাতাসে পরাগায়িত হয়। বায়ু দ্বারা পরাগরেণের জন্য গমের ফুলে বেশ কয়েকটি অভিযোজন সনাক্ত করা যায়। তারা নীচে বর্ণিত হয়।

গমের ফুল খুব ছোট। যেহেতু পোকামাকড় বা প্রাণী পরাগায়নের জন্য ফুলের কাছে আসে না তাই পরাগায়নের জন্য ফুলের আকার অপরিহার্য উপাদান নয়। গমের ফুলগুলিতে পোকামাকড় বা প্রাণী আকর্ষণ করার জন্য প্রয়োজনীয় বড় পাপড়ি বা অন্যান্য ফুলের কাঠামো নেই। গমের ফুলগুলিতেও অমৃত বা সুগন্ধ নেই। পোকামাকড় এবং প্রাণী দ্বারা পরাগযুক্ত বেশিরভাগ ফুলের গাছগুলি ফুলগুলিতে তাদের পরাগায়িত এজেন্টদের আকর্ষণ করতে অমৃত এবং সুগন্ধি ব্যবহার করে। যেহেতু গমের ফুল বাতাসের দ্বারা পরাগায়িত হয়, এতে অমৃত এবং সৌন্দর্যের অভাব রয়েছে। বায়ু থেকে পরাগ ধরার জন্য গমের ফুলের বিশেষ অংশ থাকে। পাপড়িগুলি গমের ফুলে খুব ছোট। স্টামেন এবং পিস্তিল উভয়ই দীর্ঘ।

গোপাল ফুলের পরাগায়ন

ফুলের বিভিন্ন অংশ

(ক) পুষ্পাক্ষ (Thalmus) : পুষ্পাক্ষ সাধারণত গোলাকার এবং ফুলের বৃন্ডশীর্ষে অবস্থান করে। এর উপর বাকি চারটি স্তবক পরপর সাজানো থাকে।

(খ) বৃতি (Calyx): ফুলের বাইরের স্তবককে বৃতি বলে। বৃতি খণ্ডিত না হলে সেটি যুক্তবৃত্তি, কিন্তু যখন এটি সম্পূর্ণরূপে খণ্ডিত হয়, তখন তাকে বিযুক্তবৃতি বলে। এর প্রতিটি খণ্ডকে বৃত্যাংশ বলে। সবুজ বৃতি খাদ্য প্রস্তুত কাজে অংশ নেয়। এদের প্রধান কাজ ফুলের ভিতরের অংশগুলোকে রোদ, বৃষ্টি এবং পোকার আক্রমণ থেকে রক্ষা করা। তবে যখন বৃতি রং-বেরঙের হয়, তখন তারা পরাগায়নে সাহায্য করে। অর্থাৎ পরাগায়নের মাধ্যম হিসেবে কাজ করে এমন পোকামাকড়, পশু, পাখি ইত্যাদিকে আকর্ষণ করে।

(গ) দলমণ্ডল (Corolla): এটি বাইরের দিক থেকে দ্বিতীয় স্তবক। প্রতিটি খণ্ডকে দল বা পাপড়ি বলে। পাপড়িগুলি যুক্ত থাকলে যুক্তদল এবং আলাদা থাকলে বিযুক্তদল বলা হয়। পাপড়ি সাধারণত রঙিন হয়।

(গ) পুংস্তবকঃক (Androecium): এটি ফুলের তৃতীয় স্তবক এবং একটি অত্যাবশ্যকীয় অংশ। এই ম্ভবকের প্রতিটি অংশকে পুংকেশর (stamen) বলে। একটি পুংস্তবকে এক বা একাধিক পুংকেশর থাকতে পারে। প্রতিটি পুংকেশরের দুইটি অংশ যথা-

  1. পুংদণ্ড বা পরাগদণ্ড (filarment) এবং
  2. পরাগধানী বা পরাগথলি (anther)।

পুংকেশরের দণ্ডের মতো অংশকে পুংদণ্ড এবং শীর্ষের থলির মতো অংশকে পরাগধানী বলে। পরাগধানী এবং পুংদন্ড সংযোগকারী অংশকে যোজনী বলে। পরাগধানীর মধ্যে মধ্যে পরাগ উৎপন্ন হয়।

এই পরাগরেণু অঙ্কুরিত হয়ে পরাগনালি (Pollen tube) গঠন করে। এই পরাগ নালিকায় পুংজননকোষ (Male gamete) উৎপন্ন হয়। পুংজননকোষ সরাসরি জনন কাজে অংশগ্রহণ করে। কখনো পুংস্তবকের পুংদণ্ডগুলো পরস্পরের সাথে সংযুক্ত হতে পারে। আবার পরাপথলিগুলোও কখনো পরস্পরের সাথে যুক্ত থাকে।

পরাগদণ্ড এক গুচ্ছে থাকলে তাকে একগুচ্ছ (Monadelphous), (যেমন: জবা),
দুই গুচ্ছে থাকলে দ্বিগুচ্ছ (Dladelphous), (যেমন: মটর) এবং বহুগুচ্ছে থাকলে তাকে বহুগুচ্ছ (Polyadelphous) পুস্তক বলা হয়, (যেমন: শিমুল)।
যখন পরাগধানী একপুচ্ছে থাকে, তখন তাকে যুক্তধানী বা সিনজেনেসিয়াস (Syngenesious),
মুক্ত অবস্থায় এবং পুংকেশর দলমণ্ডলের সাথে যুক্ত থাকলে তাকে মসলগ্ন (Epipetalous) পুস্তক বলে (যেমন: ধুতুরা)।

(ঙ) স্ত্রীস্তবক(Gynoectum): খ্ৰীৰক বা পর্ভকেশরের অবস্থান ফুলটির কেন্দ্রে। এটি ফুলের আর একটি অত্যাবশ্যকীয় স্তবক। স্ত্রীস্তবক এক বা একাধিক গর্ভপত্র (Carpel) নিয়ে গঠিত হতে পারে। একটি গর্ভপত্রের তিনটি অংশ, যথা:

  1. গর্ভাশয় (Ovary),
  2. গর্ভপন্ড (Style) এবং
  3. পর্ভমুণ্ড (Sigma)।
যখন কতগুলো গর্ভপত্র নিয়ে একটি গ্রীস্তবক গঠিত হয় এবং এরা সম্পূর্ণভাবে পরস্পরের সাথে যুক্ত থাকে, তখন তাকে যুক্তগর্ভপত্রী (Syncurpous), আর আলাদা থাকলে বিযুক্তপর্ভপত্রী (Polycarpous) বলে। গর্ভাশয়ের ভিতরে এক বা একাধিক ডিম্বক বিশেষ নিয়মে সজ্জিত থাকে। এসব ডিম্বকের মধ্যে গ্রীপ্রজননকোষ বা ডিম্বাণু সৃষ্টি হয়। এই ডিম্বাণুই পুংস্তবকের মতো সরাসরি জননকাজে অংশগ্রহণ করে।

 শস্য ক্যাপচার জন্য কলঙ্ক চটচটে এবং পালকযুক্ত। গমের ফুলের পৃথক প্রজনন কাঠামো স্পাইকলেট নামে পরিচিত এককগুলিতে সাজানো হয়। গাছের শীর্ষে অবস্থিত গম শীট নামে একটি কাঠামো গঠনে অনেকগুলি স্পাইকলেট একসাথে প্যাক করা হয়। পরাগায়নের কার্যকারিতা বাড়াতে গম প্রচুর পরিমাণে পরাগ শস্য উত্পাদন করে। তদুপরি, গমের পরাগ তুলনামূলকভাবে ছোট হয়, বাতাসের সাথে পরাগ শস্যের প্রবাহকে সহজতর করে তোলে।

[ বি:দ্র: নমুনা উত্তরঃ বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস থেকে সংগ্রহ]

বিশেষ সতর্কতা: উপরোক্ত নমুনা উত্তরগুলো দেওয়ার একমাত্র উদ্দেশ্য হল, শিক্ষার্থীদের নির্ধারিত বিষয়ের উপর ধারণা দেওয়া। ধারণা নেওয়ার পর অবশ্যই নিজের মত করে এসাইনমেন্ট লিখতে হবে। উল্লেখ্য যে, হুবহু লেখার কারণে আপনার উত্তর পত্রটি বাতিল হতে পারে। এ সংক্রান্ত কোন দায়ভার JahanBanglaNews -এর নয়।






আপনি পিডিএফ ফাইল ডাউনলোড করতে পারবেন 180 সেকেন্ড পর



Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url