১০ম (দশম) শ্রেণীর অ্যাসাইনমেন্ট ৫ম সপ্তাহের ভূগোল ও পরিবেশ উত্তর ২০২২, ১০ম শ্রেণির ভূগোল ও পরিবেশ অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ৫ম সপ্তাহের, Class 10 Bhugola O Paribesa Assignment 5th week Answer 2022

১০ম (দশম) শ্রেণীর অ্যাসাইনমেন্ট ৫ম সপ্তাহের উত্তর ২০২২

১০ম (দশম) শ্রেণীর অ্যাসাইনমেন্ট ৫ম সপ্তাহের ভূগোল ও পরিবেশ উত্তর ২০২২, Class 10 Bhugola O Paribesa Assignment 5th week Answer 2022

২০২২ সালের ১০ম শ্রেণি পরীক্ষার্থীদের জন্য ৫ম সপ্তাহ ভূগোল ও পরিবেশ এসাইনমেন্ট প্রশ্ন প্রকাশিত হয়েছে। ২০২২ সালের ১০ম শ্রেণি পরীক্ষার্থীরা ৫ম সপ্তাহের ভূগোল ও পরিবেশ উত্তর। দশম শ্রেণীর ৫ম সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট এর ভূগোল ও পরিবেশ উত্তর

চলমান Covid-19 মহামারীর কারণে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা মোতাবেক পুনর্বিন্যাস কৃত পাঠ্যসূচির ভিত্তিতে শিক্ষার্থীদের শিখন কার্যক্রমে পুরোপুরি সম্পৃক্তকরণ ও ধারাবাহিক মূল্যায়ন এর আওতায় আনার জন্য ৫ম সপ্তাহের ভূগোল ও পরিবেশ অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ করা হয়েছে। ৬ শে ফ্রেরুয়ারি ২০২২ থেকে ৫ম সপ্তাহের ভূগোল ও পরিবেশ অ্যাসাইনমেন্ট কার্যক্রম শুরু হবে। ২০২২ সালের ১০ম শ্রেণির পরীক্ষার্থীদের জন্য ৫ম সপ্তাহের ভূগোল ও পরিবেশ অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ করা হয়েছে এবং শিক্ষার্থীরা তাও বাসায় বসে উত্তর প্রদান করে তা নিজ দায়িত্বে যত দ্রুত সময়ের মধ্যে শিক্ষকের নিকটস্তান্তর করবেন। ১০ম শ্রেণীর ৫ম সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট এর ভূগোল ও পরিবেশ উত্তর ২০২২

১০ম শ্রেণির অ্যাসাইনমেন্ট ভূগোল ও পরিবেশ উত্তর ৫ম সপ্তাহের ২০২২, Class 10 Assignment Geography and environment Answer 5th week 2022

শিক্ষা মন্ত্রণালয় কর্তৃক প্রকাশিত বিভিন্ন বিজ্ঞপ্তিতে সারা দেশের সকল শিক্ষাব্যবস্থা বিভিন্ন পদ্ধতিতে পরিচালিত হচ্ছে। বিভিন্ন সময় বিভিন্ন প্রক্রিয়া অনুসরণ করে শিক্ষা মন্ত্রণালয় সারা দেশের সকল শিক্ষা কার্যক্রম চালু রেখেছে। এরই ধারাবাহিকতায় ৬ শে ফ্রেরুয়ারি ২০২২ তারিখ ১০ম শ্রেণীর এসাইনমেন্ট ভূগোল ও পরিবেশ ৫ম সপ্তাহের প্রকাশতি হয়েছে। ১০ম, দশম শ্রেণীর অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ২০২২ সম্পর্কিত নির্দেশনা আমরা আমাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করেছি। শিক্ষার্থীরা ভূগোল ও পরিবেশ বিষয়ে পারদর্শী হয়ে ওঠার জন্য এই মহামারীর সময় শিক্ষা মন্ত্রণালয় এসাইনমেন্ট এর ব্যবস্থা করেছেন। আমাদের ওয়েবসাইটে অ্যাসাইনমেন্ট এর নমুনা উত্তর প্রকাশিত হয়েছে। এই উত্তর দেখে শিক্ষার্থীরা এসাইনমেন্ট এর সমাধান কিভাবে করতে হবে সে সম্পর্কে ধারনা পাবেন। ১০ম শ্রেণির ৫ম সপ্তাহের এসাইনমেন্ট উত্তর আমাদের ওয়েবসাইট থেকে নমুনা হিসেবে ডাউনলোড করে নিতে পারেন।

১০ম শ্রেণির ৫ম সপ্তাহ অ্যাসাইনমেন্ট ভূগোল ও পরিবেশ সমাধান ২০২২, class 10 5th week Assignment Bhugola O Paribesa Answer 2022

১০ম (দশম)  শ্রেণির এর শিক্ষার্থীদের জন্য ভূগোল ও পরিবেশ অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশিত হয়েছে। দশম শ্রেণীর অ্যাসাইনমেন্ট ভূগোল ও পরিবেশ ৫ম সপ্তাহের উত্তর ও প্রশ্ন সম্পর্কে প্রকাশিত করা হয়ে থাকে জাহান বাংলা নিউজ ওয়েবসাইট। ২০২২ সালে ১০ম (দশম) শ্রেণীর ভূগোল ও পরিবেশ অ্যাসািনমেন্ট ৫ম সপ্তাহের উত্তর যে সকল পরীক্ষার্থী বিদ্যালয়ে সকল বিভাগ নিয়ে পড়াশোনা করেছেন তাদের জন্য। সকল বিভাগের একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে  ভূগোল ও পরিবেশ সম্পর্কে এবার এসাইনমেন্ট প্রকাশিত হয়েছে। ১০ম শ্রেণীর ভূগোল ও পরিবেশ অ্যাসাইনমেন্ট সমাধান আমাদের ওয়েবসাইটে নমুনা উত্তর হিসেবে পাওয়া যাচ্ছে।

১০ম, দশম শ্রেণীর অ্যাসাইনমেন্ট ভূগোল ও পরিবেশ ৫ম সপ্তাহ শিখনফল, class 10 Bhugola O Paribesa 5th Week Assignment Answer

অ্যাসাইনমেন্ট ২ 

২০২২ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীদের জন্য অ্যাসাইনমেন্ট বা নির্ধারিত কাজ ও মূল্যায়ন নির্দেশনা

১০ম শ্রেণির অ্যাসাইনমেন্ট ৫ম সপ্তাহের ভূগোল ও পরিবেশ উত্তর ও প্রশ্ন , Class 10 Assignment 5th Week Bhugola O Paribesa Answer 2022

১০ম শ্রেণির অ্যাসাইনমেন্ট ৫ম সপ্তাহের ভূগোল ও পরিবেশ উত্তর ও প্রশ্ন ২০২২

১০ম শ্রেণির ভূগোল ও পরিবেশ ৫ম সপ্তাহ অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর , class 10 Geography and environment 5th Week Assignment Answer 2022


১০ম শ্রেণির অ্যাসাইনমেন্ট ভূগোল ও পরিবেশ উত্তর ৫ম সপ্তাহ ২০২২, class 10 2022   Assignment Bhugola O Paribesa answer 5th Week

১০ ম শ্রেণির অ্যাসাইমেন্ট সমাধান ২০২২ ৫ ম সপ্তাহ
বিষয়ঃ ভূগোল ও পরিবেশ
অ্যাসাইমেন্ট নংঃ ০২

শিরোনাম : বারিমন্ডলের অন্তর্গত সমুদ্রতলদেশের বৈচিত্র্যময় ভূমিরুপের বর্ণনা ।

বারিমন্ডলের ধারণাঃ

Hydrosphere -এর বাংলা প্রতিশব্দ বারিমণ্ডল । Hydro শব্দের অর্থ পানি এবং Sphere শব্দের অর্থ মণ্ডল । আমরা জানি পৃথিবীর সর্বত্র রয়েছে পানি । এ বিশাল জলরাশি পৃথিবীর বিভিন্ন স্থানে ভিন্ন ভিন্ন অবস্থায় থাকে যেমন : কঠিন ( বরফ ) , গ্যাসীয় ( জলীয়বাশ ) এবং তরল । বায়ুমন্ডলে পানি রয়েছে জলীয়বাশ হিসেবে , ভূপৃষ্ঠে রয়েছে তরল ও কঠিন অবস্থায় এবং ভূপৃষ্ঠের তলদেশে রয়েছে ভূগর্ভস্থ তরল পানি । সুতরাং বারিমণ্ডল বলতে বোঝায় পৃথিবীর সকল জলরাশির অবস্থানভিত্তিক বিস্তরণ । পৃথিবীর সকল জলরাশির শতকরা 97 ভাগ পানি রয়েছে সমুদ্রে ( মহাসাগর , সাগর ও উপসাগর ) । মাত্র ৩ ভাগ পানি রয়েছে মদী , হিমবাহ , মৃত্তিকা , বায়ুমন্ডল ও জীবমন্ডলে । পৃথিবীর সমস্ত পানিকে দুই ভাগে ভাগ করা যায় যেমন লবনাক্ত ও মিঠা পানি । পৃথিবীর সকল মহাসাগর , সাগর ও উপসাপরের জলরাশি লবনাক্ত এবং নদী , হ্রদ ও ভূগর্ভস্থ পানি মিঠা পানির উৎস ।

বারিমন্ডলের ধারণা টেবিল

মহাসাগরের ধারণাঃ

বারিমন্ডলের উন্মুক্ত বিস্তীর্ণ বিশাল লবনাক্ত জলরাশিকে মহাসাগর বলে । পৃথিবীতে পাঁচটি মহাসাগর দক্ষিণ মহাসাগর । এর মধ্যে প্রশান্ত মহাসাগর বৃহত্তম ও গভীরতম । আটলান্টিক মহাসাগর ভগ্ন উপকূলবিশিষ্ট এবং এটি অনেক আবদ্ধ সাগরের সৃষ্টি করেছে । ভারত মহাসাগর এশিয়া ও আফ্রিকা মহাদেশ দ্বারা পরিবেষিত । ৬০ ° দক্ষিণ অক্ষাংশ থেকে এন্টার্কটিকার হিমভাগ পর্যন্ত দক্ষিণ মহাসাগরের অবস্থান । দক্ষিণ মহাসাগরের দক্ষিণে এন্টার্কটিকা মহাদেশ বছরের সকল সময় বরফে আচ্ছন্ন থাকে । উত্তর গোলার্ধের উত্তর প্রান্তে উত্তর মহাসাগর অবস্থিত এবং এর চারদিক স্থলবেষ্টিত ।

সারণি ৩ : মহাসাগরের আয়তন ও গড় গভীরতা

সারণি ৩ : মহাসাগরের আয়তন ও গড় গভীরতা


মহাসাগর অপেক্ষা স্বল্প আয়তনবিশিষ্ট জলরাশিকে সাগর বলে । যথাভূমধ্যসাগর , লোহিত সাগর , ক্যরিবিয়ান সাগর , জাপান সাগর ইত্যাদি । তিনদিকে স্থলভাগ দ্বারা পরিবেষ্টিত এবং একদিকে জল তাকে উপসাগর বলে । যথাঃ বঙ্গোপসাগর , পারস্য উপসাগর ও মেক্সিকো উপসাগর ইত্যাদি । চারদিকে স্থলভাগ দ্বারা বেষ্টিত জলভাগকে হ্রদ বলে । যথা রাশিয়ার বৈকাল হ্রদ , আমেরিকা যুক্তরাজ্য ও কানাডার সীমান্তে অবস্থিত সুপিরিয়র হ্রদ ও আফ্রিকার ভিক্টোরিয়া হ্রদ ইত্যাদি ।

সমুদ্রের তলদেশের বৈচিত্র্যময় ভূমিরূপ :

ভূপৃষ্ঠের উপরের ভূমিরূপ যেমন উঁচুনিচু তেমনি সমুদ্র তলদেশও অসমান । কারণ সমুদ্রতলে আগ্নেয়গিরি , শৈলশিরা , উচ্চভূমি ও গভীর থাত প্রভৃতি বিদ্যমান আছে । শব্দতরঙ্গের সাহায্যে সমুদ্রের গভীরতা মাপা হয় । এ শব্দতরঙ্গ প্রতি সেকেন্ডে পানির মধ্য দিয়ে প্রায় ১,৪৭৫ মিটার নিচে যায় এবং আবার ফিরে আসে । ফ্যাদোমিটার ( Fathometer ) যন্ত্রটি দিয়ে সমুদ্রের গভীরতা মাপা হয়।

সমুদ্রের তলদেশের ভূমিরূপকে পাঁচটি ভাগে বিভক্ত করা হয় । যথা— 
( ১ ) মহীসোপান ( Continental shelf )
( ২ ) মহীঢাল ( Continental slope )
( ৩ ) গভীর সমুদ্রের সমভূমি ( Deep sea plains )
( ৪ ) নিমজ্জিত শৈলশিরা ( Oceanic ridges )
( ৫ ) গভীর সমুদ্রথাত ( Oceanic trench )

সমুদ্রের তলদেশের বৈচিত্র্যময় ভূমিরূপ চিত্র


( ১ ) মহীসোপান :

পৃথিবীর মহাদেশসমূহের চারদিকে স্থলভাগের কিছু অংশ অল্প ঢালু হয়ে সমুদ্রের পানির মধ্যে নেমে গেছে । এরুপে সমুদ্রের উপকূলরেখা থেকে তলদেশ ক্রমনিম্ন নিমজ্জিত অংশকে মহীসোপান বলে । মহীসোপানের সমুদ্রের পানির সর্বোচ্চ গভীরতা ১৫০ মিটার । এটি ১ ° কোণে সমুদ্র তলদেশে নিমজ্জিত থাকে । মহীসোপানের গড় প্রশস্ততা ৭০ কিলোমিটার । মহীসোপানের সবচেয়ে উপরের অংশকে উপকূলীয় ঢাল বলে । মহীসোপানের বিস্তৃতি সর্বত্র সমান নয় । উপকূলভাগের বন্ধুরতার উপর এর বিস্তৃতি নির্ভর করে । উপকূল যদি বিস্তৃত সমভূমি হয় , তবে মহীসোপান অধিক প্রশস্ত হয় । মহাদেশের উপকূলে পর্বত বা মালভূমি থাকলে মহীসোপান সংকীর্ণ হয় । ইউরোপের উত্তরে বিস্তীর্ণ সমভূমি তবে ইউরোপের উত্তর পশ্চিমে পৃথিবীর বৃহত্তম মহীসোপান অবস্থিত । মহীসোপানের দ্বিতীয় বৃহত্তম অংশ উত্তর আমেরিকার পূর্ব উপকূলে দেখতে পাওয়া যায় । অথচ এর পশ্চিমে উপকূল বরাবর উত্তর দক্ষিণ ভঙ্গিল রকি পর্বত অবস্থান করায় সেখানে মহীসোপান খুবই সংকীর্ণ । আফ্রিকা মহাদেশের অধিকাংশ স্থান মালতুমি বলে এর পূর্ব ও পশ্চিম উপকূলের মহীসোপান থুবই সরু । সমুদ্রতটে সমুদ্রতরঙ্গ ও ক্ষয়ক্রিয়ার দ্বারা মহীসোপান গঠনে সহায়তা করে থাকে ।

( ২ ) মহীঢাল :

মহীসোপানের শেষ সীমা থেকে ভূভাগ হঠাৎ থাড়াভাবেনেমে সমুদ্রের গভীর তলদেশের সঙ্গে মিশে যায় । এ ঢালু অংশকে মহীঢাল বলে । সমুদ্রে এর গভীরতা ২০০ থেকে ৩,০০০ মিটার । সমুদ্র তলদেশের এ অংশ অধিক খাড়া হওয়ার জন্য প্রশস্ত কম হয় । এটি গড়ে প্রায় ১৬ থেকে ৩২ কিলোমিটার প্রশস্ত । মহীঢ়ালের উপরিভাগ সমান নয় । অসংখ্য আস্তঃসাপরীয় গিরিখাত অবস্থান করায় তা খুবই বন্ধুর প্রকৃতির । এর ঢাল মৃদু হলে জীবজন্তুর দেহাবশেষ , পলি প্রভৃতির অবক্ষেপণ দেখা যায় ।

( ৩ ) গভীর সমুদ্রের সমভূমি :

মহীঢাল শেষ হওয়ার পর থেকে সমুদ্র তলদেশে যে বিস্তৃত সমভূমি দেখা যায় তাকে গভীর সমুদ্রের সমভূমি বলে । এর গড় গভীরতা ৫,০০০ মিটার । এ অঞ্চলটি সমতুমি নামে খ্যাত হলেও প্রকৃতপক্ষে তা কস্তুর । কারণ গভীর সমুদ্রের সমভূমির উপর জলমগ্ন বহু শৈলশিরা ও উচ্চভূমি অবস্থান করে । আবার কোথাও রয়েছে নানা ধরনের আগ্নেয়গিরি । এ সমস্ত উচ্চভূমির কোনো কোনোটি আবার জলরাশির উপর অবস্থান করে । সমুদ্রের এ গভীর অংশে পলিমাটি , আগ্নেয়গিরি থেকে উঠা লাভা সঞ্চিত হয় । এ সকল সঞ্চিত পদার্থ স্তরে স্তরে জমা হয়ে পাললিক শিলার সৃষ্টি করে ।

( ৪ ) নিমজ্জিত শৈলশিরা:

সমুদ্রের অভ্যন্তরে অনেকগুলো আগ্নেয়গিরি অবস্থান করছে । এসব আগ্নেয়গিরি থেকে লাভা বেরিয়ে এসে সমুদ্রগর্ভে সঞ্চিত হয়ে শৈলশিরার ন্যায় ভুমিরুপ গঠন করেছে । এগুলোই নিমজ্জিত শৈলশিরা নামে পরিচিত । নিমজ্জিত শৈলশিরাগুলোর মধ্যে মধ্য আটলান্টিক শৈলশিরা সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য ।

( ৫ ) গভীর সমুদ্রখাত :

গভীর সমুদ্রের সমভূমি অঞ্চলের মাঝে মাঝে গভীর খাত দেখা যায় । এ সকল থাতকে গভীর সমুদ্রখাত বলে । পাশাপাশি অবস্থিত মহাদেশীয় ও সামুদ্রিক প্লেট সংঘর্ষের ফলে সমুদ্রখাত প্লেট সীমানায় অবস্থিত । এ প্লেট সীমানায় ভূমিকম্প ও আগ্নেয়গিরি অধিক হয় বলেই এ সকল খাত সৃষ্টি হয়েছে । এ খাতগুলো অধিক প্রশস্ত না হলেও খাড়া ঢালবিশিষ । এদের গভীরতা সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ৫,৪০০ মিটারের অধিক । প্রশান্ত মহাসাগরেই গভীর সমুদ্রখাতের সংখ্যা অধিক । এর অধিকাংশই পশ্চিম প্রান্তে অবস্থিত । এ সকল গভীর সমুদ্রখাতের মধ্যে গুয়াম দ্বীপের ৩২২ কিলোমিটার দক্ষিণ পশ্চিমে অবস্থিত মারিয়ানা থাত সর্বাপেক্ষা গভীর । এর গভীরতা প্রায় ১০ , ৮৭০ মিটার এবং এটাই পৃথিবীর গভীরতম থাত । এছাড়া আটলান্টিক মহাসাগরের পোটোরিকো থাত ( ৮,৫৩৮ মিটার ) , ভারত মহাসাগরের খাতকে গভীর সমুদ্রখাত বলে । পাশাপাশি অবস্থিত মহাদেশীয় ও সামুদ্রিক প্লেট সংঘর্ষের ফলে সমুদ্রখাত প্রেট সীমানায় অবস্থিত । এ প্লেট সীমানায় ভূমিকম্প ও আগ্নেয়গিরি অধিক হয় বলেই এ সকল থাত সৃষ্টি হয়েছে । এ থাতগুলো অধিক প্রশস্ত না হলেও খাড়া ঢালবিশিষ্ট ।

বিশেষ সতর্কতা: উপরোক্ত নমুনা উত্তরগুলো দেওয়ার একমাত্র উদ্দেশ্য হল, শিক্ষার্থীদের নির্ধারিত বিষয়ের উপর ধারণা দেওয়া। ধারণা নেওয়ার পর অবশ্যই নিজের মত করে এসাইনমেন্ট লিখতে হবে। উল্লেখ্য যে, হুবহু লেখার কারণে আপনার উত্তর পত্রটি বাতিল হতে পারে। এ সংক্রান্ত কোন দায়ভার JahanBanglaNews -এর নয়।

১০ম শ্রেণির অ্যাসাইনমেন্ট ভূগোল ও পরিবেশ উত্তর ৫ম সপ্তাহ ২০২২, class 10 Assignment Bhugola O Paribesa answer 5th Week 2022


৬ষ্ঠ - ১০ম শ্রেণির ৫ম সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট ২০২২ পিডিএফ ডাউনলোড

আপনি পিডিএফ ফাইল ডাউনলোড করতে পারবেন 100 সেকেন্ড পর



Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url